মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৬ অপরাহ্ন

সিপিসি প্রতিষ্ঠার শততম বার্ষিকী উদযাপন করছে চীন

  • প্রকাশ সময় শুক্রবার, ২ জুলাই, ২০২১
  • ২৭৮ বার দেখা হয়েছে
সিপিসি প্রতিষ্ঠার শততম বার্ষিকী উদযাপন করছে চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : উৎসব আর জমজমাট আয়োজনে চীনসহ পুরো বিশ্বে উদযাপিত হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় রাজনৈতিক দল কমিউনিস্ট পার্টি অব চায়না’র (সিপিসি) শততম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এই উলক্ষ্যে দিনটি উদযাপনে আয়োজন করা হয়েছে আনন্দ উৎসবের। পুরো চীন সেজেছে বাহারি সাজে। ১৯২১ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করা বিশ্বের বৃহত্তম এ রাজনৈতিক দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে নজরকাড়া সব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রঙিন আলোকচ্ছটায় সাজিয়ে দেয়া হয়েছে চীনের সব শহরকে।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) বেইজিংয়ের থিয়ানআনমেন মহাচত্বরে আয়োজন করা হয় এক জমকালো অনুষ্ঠানের। চীনের ৭০ হাজারেরও বেশি নাগরিক উদযাপনে অংশ নেন। অনুষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দেন চীনের প্রেসিডেন্ট ও সিপিসি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং কেন্দ্রীয় সামরিক কমিশনের চেয়ারম্যান শি জিন পিং।

প্রেসিডেন্ট শি তার ভাষণে বলেন, সিপিসি বিগত ১০০ বছর ধরে চীনের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে একটি মূল লক্ষ্য অর্জনে নেতৃত্ব দিয়েছে- সেটি হলো চীনা জাতির পুনরুত্থান।

প্রথম শতবর্ষে চীন সব দিক থেকে সমৃদ্ধ সমাজ গঠনের লক্ষ্য অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে উল্লেখ করে প্রেসিডেন্ট শি বলেন, চীনে চরম দারিদ্র্য সমস্যার একটি ঐতিহাসিক সমাধান আমরা করতে পেরেছি। এখন আমরা দ্বিতীয় শতবর্ষের লক্ষ্য- চীনকে সার্বিকভাবে একটি আধুনিক সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে এগিয়ে যাব।

ভাষণে প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং গেল একশ বছরে সিপিসি’র চারটি বড় সাফল্যের কথা তুলে ধরেন। প্রথমত, সিপিসি চীনের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে, অদম্য মনোভাব নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে এবং এর মধ্য দিয়ে একটি নয়া-গণতান্ত্রিক বিপ্লবে বড় সাফল্য অর্জন করেছে।

দ্বিতীয়ত, চীনের জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে আত্মনির্ভরশীল চেতনায় একটি শক্তিশালী চীন প্রতিষ্ঠায় সিপিসি ভূমিকা পালন করেছে। একইসঙ্গে সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব ও সমাজতান্ত্রিক চীন বিনির্মাণে বড় সাফল্য অর্জন করেছে।

তৃতীয়ত, চীনের জনগণকে ঐকবদ্ধ করে চিন্তার মুক্তি ও প্রগতি অর্জনে নেতৃত্ব দিয়ে সংস্কার, উন্মুক্তকরণ ও সমাজতান্ত্রিক পদ্ধতির আধুনিকায়নে গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য অর্জন করেছে সিপিসি। চতুর্থত, চীনের জনগণকে ঐকবদ্ধ করে আত্মবিশ্বাস, আত্মনির্ভরতা ও উদ্ভাবনী মন্ত্রে উজ্জীবিত করেছে।

সিপিসি প্রতিষ্ঠার মহান চেতনাই দলের শক্তির উৎস বলেও মন্তব্য করেন প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং।

১৯৪৯ সালে মহান কমিউনিস্ট বিপ্লবের মাধ্যমে গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের (পিপলস রিপাবলিক অব চায়না) জন্ম হয় কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বে। সেই থেকে চীনকে প্রগতির পথে চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সিপিসি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 dailysuprovatrajshahi.com
Developed by: MUN IT-01737779710
Tuhin