সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৩০ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের চাই ১৫৩ রান

  • প্রকাশ সময় বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১
  • ১৮৭ বার দেখা হয়েছে

স্পোর্টস ডেস্ক : শততম টি-টোয়েন্টিতে বোলাররা নিজেদের কাজ সেরে রাখলেন। এবার ব্যাটসম্যানদের প্রমাণের পালা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি জিততে বাংলাদেশের চাই ১৫৩ রান।

হারারের টি-টোয়েন্টিতে মোস্তাফিজুর রহমান-শরিফুল ইসলামদের তোপে ১৯ ওভারে ১৫২ রানে অলআউট হয়ে গেছে জিম্বাবুয়ে। স্বাগতিকদের সর্বোচ্চ ৪৩ রান রেগিস চাকাভার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৫ রান ডিয়ন মায়ার্সের।

আর বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেওয়া মোস্তাফিজ হলেন সবচেয়ে সফল বোলার। প্রথম উইকেটের পর শেষটাও মুড়ে দিয়েছেন বাঁহাতি পেসার। ৪ ওভারে ৩১ রান দিয়ে তার শিকার ৩ উইকেট। আলো ছড়িয়েছেন আরেক বাঁহাতি শরিফুলও। ৩ ওভারে ১২ রান খরচায় তার শিকার ২ উইকেট। ‍মিতব্যয়ী ছিলেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। নতুন বল হাতে তুলে নেওয়া ডানহাতি পেসার ৪ ওভারে ২৩ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। সাকিব আল হাসান ও সৌম্য সরকার নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

হারারেতে রেগিস চাকাভার বিদায়ের পর পাল্টে যায় দৃশ্যপট। দ্রুত ৪ উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। বাংলাদেশের বোলাররা ঘুরে দাঁড়িয়ে চেপে ধরে স্বাগতিকদের। চাকাভার ব্যাটে যদিও রানে গতি পেয়েছিল তবে এই উইকেটকিপারের বিদায়ের পর ভেঙে পড়ে প্রতিরোধ। তার আউট হওয়ার ৪ বল পর শূন্য হাতে ফিরে যান অধিনায়ক সিকান্দার রাজা। অর্থাৎ, এক ওভারে ২ উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। এরপর সৌম্য সরকারের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে মাত্র ৬ রান করে তারিসাই মুসাকান্দা ফিরে গেলে বিপদ বাড়ে।

যদিও একপ্রান্তে আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে আশা জাগিয়ে যাচ্ছিলেন ডিয়ন মায়ার্স। কিন্তু তিনিও টিকতে পারেননি বেশিক্ষণ। শরিফুল ইসলামের দ্বিতীয় শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। বাঁহাতি পেসারের বলে বোল্ড হয়ে ফেরার আগে ২২ বলে ২ বাউন্ডারিতে করেন ৩৫ রান।

রান আউটে থামে চাকাভা ঝড়

রীতিমতো তাণ্ডব চালাচ্ছিলেন রেগিস চাকাভা। অবশেষে তার ঝড় থামে রান আউটে। বাংলাদেশের বোলারদের কঠিন পরীক্ষা নিয়ে নুরুল হাসান সোহানের চমৎকার থ্রোতে শেষ হয় চাকাভার ইনিংস। তার বিদায়ের পর জিম্বাবুয়ের স্কোর ছিল ১০.১ ওভারে ৩ উইকেটে ৯১ রান।

হারারের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ে শুরুতেই উইকেট হারালেও চাকাভার ব্যাটে এগিয়ে যাচ্ছিল দারুণভাবে। মেহেদী হাসানের এক ওভারেই তিনি নেন ১৮ রান। অবশেষে তাকে থামালেন সোহান। উইকেটের পেছন থেকে থ্রো করে অন্যপ্রান্তের স্টাম্পে সরাসরি আঘাত করেন বল। চাকাভা পৌঁছাতে না পারলে শেষ হয় তার ৪৩ রানের ইনিংস।

জিম্বাবুইয়েন উইকেটকিপার ২২ বলে খেলেছেন ৪৩ রানের ইনিংস। ঝড়ো ইনিংসটি তিনি সাজান ৫ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায়। তার বিদায়ে জিম্বাবুয়ে হারায় তৃতীয় উইকেট।

এর আগে শুরুতেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। তবে জিম্বাবুয়েকে আটকে রাখা যায়নি। রেগিস চাকাভার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে রান বাড়িয়ে নেয় স্বাগতিকরা। এই ব্যাটসম্যানকে না হলেও সাকিব আল হাসান স্বস্তি ফেরান ওয়েসলি মাধেভেরেকে আউট করে।

হারারের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি জিম্বাবুয়ে। শুরুতেই বাংলাদেশকে সাফল্য এনে দেন মোস্তাফিজ। এই পেসারের বলে চমৎকার ক্যাচ নিয়েছেন সৌম্য সরকার। তাদের মিলিত চেষ্টায় মাত্র ৭ রান করে ফেরেন তাদিওয়ানাশে মারুমানি।

তার বিদায়ের পর দাঁড়িয়ে যায় চাকাভা-মাধেভেরে জুটি। তবে সাকিবের সামনে ভেঙে পড়ে তাদের প্রতিরোধ। বাঁহাতি স্পিনার রিটার্ন ক্যাচে ফেরান মাধেভেরেকে। প্যাভিলিয়নের ফেরার আগে এই ওপেনার ২৩ বলে করেন ২৩ রান।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 dailysuprovatrajshahi.com
Developed by: MUN IT-01737779710
Tuhin