রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০২:২৯ পূর্বাহ্ন

পবা উপজেলা বিএনপি’র মতবিনিময় সভা

  • প্রকাশ সময় বৃহস্পতিবার, ২ মে, ২০২৪
  • ২৮ বার দেখা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী পবা উপজেলা বিএনপি’র আয়োজনে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রান ও পুনর্বাসন বিষয়ক সহ-সম্পাদক ও রাজশাহী মহানগর বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট শফিকুল হক মিলন। তিনি বলেন, পবা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী ২ মে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার ছিলো মনোনয়ন উত্তোলন ও জমা দেয়ার শেষ দিন ছিলো বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি ও সমমনা দলগুলো নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেনা। আর বিএনপি নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া নির্বাচনে অংশগ্রহন না করা এবং এই একতরফা নির্বাচনে ভোট দেয়া থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অনেক পূর্বেই। এটা বাস্তবায়নও করে যাচ্ছে বিএনপি। এর প্রমান গত সংসদ নির্বাচন। শুধু সংসদ নির্বাচন নয় বিএনপি ইউপি নির্বাচনের অংশগ্রহণ করছে না বলে উল্লেখ করে তিনি।

মিলন বলেন, বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারুন্যের অহংকার, আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমান এই নির্দেশনা দিয়েছেন। তার সিদ্ধান্ত মোতাবেক বিএনপি ও সমমনা দলগুলো কোন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেনা। তিনি বলেন, এই অবৈধ সরকার ২০১৮ সালে দিনের ভোট রাতে নিয়ে নির্বাচিত হয়েছিলো। এবার আবার ডামি নির্বাচন করে ক্ষমতায় এসেছে। দেশের মানুষ এবং বিশে^র বেশীর ভাগ দেশ এই ধরনের নির্বাচন মেনে না নিলেও এই নির্লজ্জ সরকার জোর করে ক্ষমতায় বসেছে। এই ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করতে নানা ধরনের অপকৌশল করছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের আজ্ঞাবহ ও ফরমায়েশি রায় দিয়ে কারাগারে পাঠাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, নির্যাতন ও মামলা দিয়ে এবং সকল বাধা প্রদান করলেও বিএনপি তার আন্দোলন থেকে পিছু হটবেনা। আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে এই ফ্যাসিস্ট সরকারের পতন ঘটানো হবে। সেইসাথে দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার এবং তত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা করে নির্বাচনের পরিবেশ তৈরী করা হবে। মিলন বলেন, বিএনপিকে ও বিএনপি নেতাদের নির্বাচনে আনার জন্য নানা কৌশল এই সরকার অবলম্বন করছে। এবারের উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রতিক তুলে দিয়েছে। কারণ বিগত নির্বাচনে দলীয় প্রতিক থাকায় তারা ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে নিতে পারেনি। এবার ভোট কেন্দ্রে ভোটার নিতে এই কৌশল অবলম্বন করেছে উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি বলেন, দলীয় প্রতিক না থাকলেও যারা এই নির্র্বাচনে প্রতিদন্দিতা করছে তারা সবাই আওয়ামী লীগ ও তাদের শরীক দলের নেতৃবৃন্দ। তারা আসলেও ভোটারদের ধোকা দিয়ে লোক দেখানো প্রতিদন্দিতা দেখিয়ে একের পর এক নির্বাচন করে যাচ্ছে। এই পাতানো নির্বাচনের ফাঁদে বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর নেতাকর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের পা না দেয়ার আহ্বান জানান তিনি। সেই সাথে প্রার্থী আত্মীয় হলেও আগামী ২৯ মে ভোট কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য নেতাকর্মী ও ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি’র সদস্য শাহজাহান চেয়ারম্যান ও বড়গাছী ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা সোহেলসহ আরো অনেকে।

সভা শেষে পারিলা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি, পবা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, পবা উপজেলা কৃষকদলের সদস্য সচিব আলমগীর হোসেনকে তাঁর বাসায় দেখনে যান মিলন। আলমগীর এক্সিডেন্ট করে দীর্ঘদিনধরে বাসায় অবস্থান কওে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তিনি তার সাথে দেখা করে অবস্থার খোঁজ খবর নেন।

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 dailysuprovatrajshahi.com
Developed by: MUN IT-01737779710
Tuhin